Friday , January 27 2023
Breaking News
Home / Countrywide / এক বউ নিয়ে দুই স্বামীর টানাটানি, হাসপাতালে ৪

এক বউ নিয়ে দুই স্বামীর টানাটানি, হাসপাতালে ৪

এক বউ নিয়ে দুই স্বামীর টানাটানির ঘটনায় রীতিমতো গোটা এলাকাজুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে দেখা গেছে। সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে ফরিদপুরের বোয়ালমারীর একটি গ্রামে। এক বউ নিয়ে প্রাত্তন ও বর্তমান দুই স্বামীর কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে শুরু হয় হাতাহাতি। এ ঘটনায় অন্তত ৪ হন আহত হয়েছনে বলে জানা গেছে।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) রাতে বোয়ালমারী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মারামারির কারণে ৪ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুই স্বামী হলেন, উপজেলার পূর্বমুড়া গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী রমেন বিশ্বাস (৪৩) ও একই গ্রামের রবিন বিশ্বাসের ছেলে নিতাই বিশ্বাস (৩২)।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মালয়েশিয়া প্রবাসী রমেন বিশ্বাসের স্ত্রীর সঙ্গে নিতাই বিশ্বাসের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তিন মাস আগে তারা পালিয়ে বিয়ে করে। টো দিন পর তাদের ফিরিয়ে আনা হয় এবং এলাকায় একটি সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেই সালিশে রমেন বিশ্বাসের স্ত্রী দ্বিতীয় স্বামী নিতাইয়ের সঙ্গে সংসার করার সিদ্ধান্ত নেন।

সম্প্রতি রমেন বিশ্বাস দেশে ফিরে এলে স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিয়ে বিয়ে করায় দ্বিতীয় স্বামীর সঙ্গে বিরোধ শুরু হয়।সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে রমেনের বাবার বাড়ির পাশে তেতুলিয়া মাদ্রাসা মোড়ের দোকানে এলে নিতাই ও তার লোকজন রমেনের বাবা রতন বিশ্বাসের ওপর হামলা চালায়।

খবর পেয়ে ছুটে আসেন রতন বিশ্বাসের ছেলে রমেন বিশ্বাস, বিপ্লব বিশ্বাস, পৌর বিশ্বাস। একপর্যায়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। আহত হয়েছেন রতন বিশ্বাস (৬০), রমেন বিশ্বাস (৪৩), বিপ্লব বিশ্বাস (৩৪) ও পৌর বিশ্বাস (৩৩)।

এদিকে এ বিষয়ে বোয়ালমারী থানার এসআই কামরুল ইসলাম সংবাদ মাধ্যমকে জানান, এ বিষয়টি খুতিয়ে দেখে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ঘটনায় কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলেও জানান তিনি।

About Rasel Khalifa

Check Also

সারা দেশের ডিসিদের সতর্ক থাকার নির্দেশ, জানা গেল কারণ

বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট এমন যেখানে এক দল অন্য দলের সমালোচনায় মত্ত রয়েছে। নানা সময় অন্যদলের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *