Tuesday , January 31 2023
Breaking News
Home / Countrywide / এবার বিএনপি নেতার অনুরোধ রাখলো পুলিশ, বন্ধ করে দিলো সড়ক

এবার বিএনপি নেতার অনুরোধ রাখলো পুলিশ, বন্ধ করে দিলো সড়ক

১০ ডিসেম্বরের সমাবেশের পূর্বে বিএনপির বেশ কয়েকজন শীর্ষ নেতাসহ, আরো বেশ কিছু সংখ্যক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা এখনো কারাগারে অন্তরীণ রয়েছেন। এদিকে নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে বিএনপি মি”ছিল এবং সমাবেশ করছে। ঢাকায় ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর প্রধান হিসেবে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও তিনি গ্রেফতার হওয়ায় খন্দকার মোশাররফ হোসেন প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন। এদিকে গতকাল মঙ্গলবার ঢাকায় বিএনপির সমাবেশের আয়োজনেও বক্তব্য দেন তিনি।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, সরকারের বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে। তারা চলে যাবে কিন্তু আপনারা থাকবেন। তাই আপনারা জনগণের সাথে থাকুন।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে এক বিক্ষো”ভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে সমাবেশ শুরু হয়।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, সিনিয়র নেতা আবদুস সালাম, রুহুল কবির রিজভীসহ নেতাদের গ্রেফতারের প্রতিবাদে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপি এই সমাবেশের আয়োজন করে।

ঢাকা উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমানুল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে এবং ঢাকা উত্তর বিএনপির সদস্য সচিব আমিনুল হক ও দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনুর সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ডক্টর আবদুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, ড. ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টুসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশ শুরুর আগে দুপুর থেকেই নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে জড়ো হতে থাকেন বিএনপির সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। তারা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মুক্তির দাবিতে স্লো”গান দেন।

দুপুর ২টায় সমাবেশ শুরুর পরপরই নয়াপল্টন কার্যালয়ের সামনে সড়কের একপাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তবে উত্তর পাশের সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক ছিল। এ কারণে নয়াপল্টন ও আশপাশের এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

এদিকে সকাল থেকে কাকরাইলের নাইটিঙ্গেল মোড় ও পল্টন মডেল থানার বিপরীত সড়কে সাঁজোয়া যান রাখা হয়। সমাবেশ মঞ্চের পশ্চিম ও উত্তর পাশের ফুটপাতে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মো”তায়েন করা হয়।

এর আগে ১০ ডিসেম্বর ঢাকা বিভাগীয় বিএনপির জনসভায় ১৩ ডিসেম্বর ঢাকা ও মহানগরে বিক্ষো”ভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করেন স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

এদিকে বিক্ষো”ভ সমাবেশকে ঘিরে নাইটিঙ্গেল-ফকিরাপুল মোড় বিএনপি কার্যালয়ের সামনের সড়কের একপাশ বন্ধ করে দেওয়া হয়। যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে কঠোর অবস্থানে ছিলেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

দুপুর ২টায় সমাবেশ শুরুর আগে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব রফিকুল আলম মঞ্চ থেকে পুলিশের কাছে একপাশে (নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়ক) সড়ক অবরোধের অনুরোধ জানান। বিএনপি নেতার অনুরোধে মাত্র ১০ মিনিট পর দক্ষিণ পাশের সড়কটি যান চলাচলের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়। তবে উত্তর পাশের সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক ছিল।

তবে দুপুর আড়াইটা থেকে উত্তর পাশের সড়কে যানবাহনের গতি কমতে শুরু করে। কারণ ঢাকার বিভিন্ন ইউনিট থেকে মি”ছিল নিয়ে আসা নেতাকর্মীরা নাইটিঙ্গেল মোড়ের উত্তর পাশের রাস্তা দিয়ে সমাবেশস্থলের দিকে যায়। এ কারণে এ সড়কে কিছুক্ষণ পরপর তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

অনুসন্ধানে জানা যায়, নয়াপল্টনের রাজপথে সমাবেশ কর্মসূচির কারণে আশপাশের সড়কেও এর প্রভাব পড়েছে। পুরানা পল্টন মোড় থেকে নাইটিঙ্গেলমুখী সড়ক, দৈনিক বাংলা মোড় থেকে ফকিরাপুলমুখী সড়কে বেলা আড়াইটা থেকে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। খুব ধীরগতির কারণে অনেক যাত্রীকে বাস থেকে নেমে হেঁটে নিজ নিজ গন্তব্যে যেতে দেখা যায়।

তবে রাস্তায় নেতাকর্মীরা জমায়েত হওয়ার কারণে তীব্র যানজট সৃষ্টি হতে থাকে, তাই যানবাহনের যাত্রীরা চরম দুর্ভো”গে পরে। যার কারণে বিএনপি ১০ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করতে চাইলে সেখানে বিএনপিকে সমাবেশ করার জন্য অনুমতি দেয়নি ডিএমপি। তবে গতকাল কার্যালয়ের সামনে বিএনপি বিক্ষো”ভ সমাবেশ করলেও অনুমতি প্রদান করে পুলিশ।

About bisso Jit

Check Also

পুলিশ বলল ‘নেই’, থানার ভেতর থেকে নিঁখোজ স্বামীর চিৎকার করে স্ত্রীকে বললেন ‘আমি আছি’

আবুল হোসেন রাজন পেশায় একজন আইনজীবী সেই সাথে তিনি একজন মানবাধিকার কর্মী হিসেবেও কাজ করেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *