Friday , January 27 2023
Breaking News
Home / Countrywide / মৃত্যুর আগে সেই রনির স্ট্যাটাস: আর কখনো কারো কাছে কিছু চাইব না, সবাই ভালো থাইকেন

মৃত্যুর আগে সেই রনির স্ট্যাটাস: আর কখনো কারো কাছে কিছু চাইব না, সবাই ভালো থাইকেন

সম্প্রতি গত কয়েকদিন আগেই প্রেমিকার অন্যত্র বিয়ে হয়ে যাওয়ায় রীতিমতো মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন প্রেমিক রনি আহমেদ (১৯)। এরপর থেকে অনেকটা একাকী সময় কাটাচ্ছিলেন তিনি। আর এরই মধ্যে গতকাল শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে আ”ত্ম’হ’ন’ন ‘করেন রনি।

গাজীপুরের শ্রীপুর উ’পজেলায় বসত’ঘর থেকে তার ম’রদেহ’ উদ্ধার হয়েছে।

শনিবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে চকপাড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিন্টু মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে একই দিন সকাল ৭টায় উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের নিজমাওনা গ্রা’মে ‘লা’শ’ উদ্ধার করা হয়। তবে শুক্রবার তিনি ফেসবুকে একটি পোস্ট দেন।

নিহত রনি আহমেদ (১৯) উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের নিজমাওনা গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে। সে শ্রীপুরের একটি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

স্থানীয়রা জানায়, বেশ কিছুদিন ধরে গ্রামের এক তরুণীর সঙ্গে রনির প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। গত ৬ জানুয়ারি ওই তরুণীর অন্যত্র বিয়ে হয়।এর পর থেকে রনির মন খারাপ হয়ে যায়। গত শুক্রবার রাতে তিনি তার ফেসবুক টাইম লাইনে লিখেছেন, ‘আর কখনো কারো কাছে কিছু চাইব না। সবাই ভালো থাইকেন। আর আমার জন্য দোয়া কইরেন। আর হয়তো কোনো পোস্ট করা হবে না।’ পরিবারের প্রাথমিক ধারণা, পছন্দের প্রেমিকার বিয়ে হয়ে যা’ওয়া’য় ‘আ”’ত্ম’হ”’ত্যা’র পথ বেছে নিয়েছেন রনি।

স্বজনরা জানান, শুক্রবার রাতে বসার ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন রনি। পরদিন শনিবার সকালে তার ঘুম ভাঙেনি বলে সন্দেহ হয়। পরে দরজা ভেঙে ঘর থেকে তার ‘মৃ’ত’দেহ পাওয়া যায়।

এদিকে এ ব্যাপারে এসআই মিন্টু মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানান, খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃ’ত’দে’হ’ উ’দ্ধার করা হয়। তবে কোনো অভিযোগ না থাকায়’ লা’শ ম’য়না’তদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয় বলেও নিশ্চিত করেছেন তিনি।

About Rasel Khalifa

Check Also

সারা দেশের ডিসিদের সতর্ক থাকার নির্দেশ, জানা গেল কারণ

বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট এমন যেখানে এক দল অন্য দলের সমালোচনায় মত্ত রয়েছে। নানা সময় অন্যদলের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *