Thursday , March 30 2023
Breaking News
Home / Sports / মাথায় বস্তা টেনে দিনমজুরের কাজ করছেন জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়াড়

মাথায় বস্তা টেনে দিনমজুরের কাজ করছেন জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়াড়

ক্রিকেট একটি জনপ্রিয় খেলা বর্তমান বিশ্বে।শুধু জনপ্রিয় খেলায় নয় এই ক্রিকেট গড়েছে অনেকের ভাগ্য। কিন্তু ক্রিকেট এমন একটি খেলা যেখানে একবার কারোর নামের পাশে ‘সাবেক’ জুড়ে গেলে অনেক ক্ষেত্রেই মনে রাখে না সেই খেলোয়াড়কে। এমনি এক ভারতীয় খেলোয়াড়ের খোঁজ পাওয়া গেলো যে কি না এখন কাজ করছেন দিনমজুর হিসেবে।

দৈনিক মজুরি কর্মী হিসেবে কাজ করছেন জাতীয় দলের সাবেক এই খেলোয়াড়। সম্প্রতি ভারতীয় পাঞ্জাবের প্রাক্তন হকি খেলোয়াড় পরমজিৎ কুমারের দৈনিক মজুরি কাজ করার খবর গণমাধ্যমের সামনে এসেছে। এরপরই বড় পদক্ষেপ নিলেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী।

পরমজিৎ কুমারকে পাঞ্জাবের ফরিদকোট মান্ডিতে একটি ট্রাকে গম ও চালের বস্তা লোড ও আনলোড করতে দেখা গেছে। এই খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী পরমজিৎ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। অ্যাথলিটের সঙ্গে দেখা করে তাকে ক্রীড়া বিভাগে সরকারি চাকরি দেন। কোচ হওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা একটি ভিডিও অনুসারে, পরমজিৎকে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ভগবন্ত মান বলেছিলেন, ‘যদিও আগের সরকার আপনার অনুরোধ শোনেনি, এখন আপনার চিন্তা করার দরকার নেই। আপনার জীবনের খারাপ পর্ব শেষ। আমরা আপনাকে ক্রীড়া বিভাগে একটি সরকারি চাকরি দেব এবং শীঘ্রই আপনি এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি পাবেন।’

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “যে ক্ষেত্রে আপনার দক্ষতা আছে আমরা সেই ক্ষেত্রেই আপনাকে সুযোগ দিতে চাই। আমাদের লক্ষ্য আবারও খেলাধুলায় পাঞ্জাবকে এক নম্বর করা এবং খেলোয়াড়দের একটি নির্দিষ্ট আয়ের কর্মসংস্থান প্রদান করা। আমি ক্রীড়া বিভাগকে নির্দেশ দিয়েছি। শীঘ্রই আপনার সমস্ত সার্টিফিকেট নিয়ে আর্নাকে কল করুন এবং একটি সরকারি চাকরির প্রস্তাব দিন।’

প্রসঙ্গত, এ দিকে মন্ত্রীর এই কথা শুনে বেশ খুশি হন কষ্টে জীবন যাপন করা খেলোয়াড়। তিনি এখন এটা নিয়ে বেশ উচ্ছাসিত হয়ে আছেন।

About Rasel Khalifa

Check Also

যোগ্যতা প্রমাণ করতে না পারায় বাদের খাতায় সাকিব, তাহলে কে হচ্ছে প্রশ্ন নিয়ে তোলপাড়

অতি নিকটে চলে এসেছে আইপিএল টুর্নামেন্ট। গতবছর বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান আইপিএলে সুযোগ না …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *