Tuesday , March 21 2023
Breaking News
Home / Entertainment / শোক কাটিয়ে কীভাবে স্বাভাবিক জীবনে ফিরব, গভীর রাতে হোটেলে চিৎকার করে কেঁদেছি : চঞ্চল চৌধুরী

শোক কাটিয়ে কীভাবে স্বাভাবিক জীবনে ফিরব, গভীর রাতে হোটেলে চিৎকার করে কেঁদেছি : চঞ্চল চৌধুরী

বাংলা দুই পর্দার অত্যন্ত জনপ্রিয় ও খ্যাতিমান অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। নিপুন অভিনয় দিয়ে ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই রয়েছেন জনপ্রিয়তার শীর্ষে। তবে সম্প্রতি গত কয়েকদিন আগেই বাবাকে হারিয়ে মানসিক দিক দিয়ে এই মুহূর্তে খুব একটা ভালো নেই সবার প্রিয় এই অভিনেতা।

বাবার স্মৃতি থেকে কোনোভাবেই বের হতে পারছেন না তিনি। যেন বাবাতেই ডুবে আছেন এ অভিনেতা।

প্রায়ই সোশ্যাল মিডিয়ায় বাবার স্মৃতিচারণ করেন চঞ্চল চৌধুরী। বাবাকে নিয়ে তার লেখা বরাবরই নেটিজেনদের হৃদয় ছুঁয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার (২ মার্চ) সন্ধ্যায় ফেসবুকে বাবার ছবি পোস্ট করে চঞ্চল লিখেছেন, মাত্র দুই-তিন দিন কথা না হলে বাবা টেনশনে পড়ে যেতেন। কত রাগ, কত অভিমান! সেখানে দুই মাস পার হয়ে গেল। কথা নাই, দেখা নাই। নাই কোনো রাগ-অভিমান। বাবা চলে যাওয়ার শোক কাটিয়ে উঠে কীভাবে স্বাভাবিক জীবনে ফিরব, সেটা জানা ছিল না। বাবা নিজেই মনে হয় পরপার থেকে সেই সমাধান করে দিয়েছেন।

তিনি আরও লেখেন, শেষ দুই মাসে কাজ নিয়ে ব্যস্ততা এত বেশি ছিল, যা আমার দুই যুগের অভিনয় অভিজ্ঞতাকে হার মানিয়েছে। কলকাতা, দিল্লি, মুম্বাই, পুনে ‘পদাতিক’-এর শুটিং। ঢাকার শুটিং। যে ব্যস্ততা শুরু হয়ে গিয়েছিল বাবা চলে যাওয়ার দুই-তিন দিন পর থেকেই।

অভিনেতার ভাষ্য, আমি ভেবেছিলাম কাজের ব্যস্ততা আমাকে বাবার শোক কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করবে। কখনও কখনও কাজের চাপে, বাবা যে নেই তা ভুলেই গেছি। আবার কলকাতা বা মুম্বাইয়ের হোটেলে গভীর রাতে বাবার কথা মনে করে একা একা চিৎকার করে কেঁদেছি। বাবার কাছ থেকে শক্তি নিয়ে কাজগুলো শেষ করার চেষ্টা করেছি।

চঞ্চল বলেন, বাবা চলে যাওয়ার পর ‘পদাতিক’ সিনেমার শুটিং করতে প্রথমবার যেদিন কলকাতা যাই, ফ্লাই করার পর যখন প্লেনটা মেঘের মধ্যে হারিয়ে যাচ্ছিলো, বিশাল আকাশ, মাটি থেকে দূরত্ব বাড়ছে ক্রমাগত। হঠাৎ মনে হলো, বাবা তো মনে হয় এই বিশাল আকাশেই হারিয়ে গেছে। শূন্য আকাশে যতদূর চোখ যায় বাবাকে খুঁজছি। না পেয়ে ঝাপসা চোখে মাথা নিচু করে চোখ বন্ধ করে শুধু কেঁদেছি।

তিনি যোগ করেন, আত্মীয় পরিজন ছেড়ে এই দুই মাসের ব্যস্ততাগুলো একটু একটু কমতে শুরু করেছে। শরীরটাও ক্লান্ত, অবসন্ন। প্রতিদিনের তুলনায় গতকাল একটু আগেই বাসায় ফিরেছিলাম। ঘর ভর্তি বাবার ছবি বাঁধানো। মন ভরে বাবাকে দেখছিলাম আর বাবাকে বলছিলাম, ‘এই কদিন তোমার খবর ঠিকমতো নেওয়া হয়নি বাবা।’ ফোন দিতে কয়েক দিন দেরি হয়ে গেলে, বাবাকে এই কথাগুলোই বলতাম। এখনও বুঝতে পারি না, বাবা কোথায় আছে? মনে হয়, ফোন বেজে উঠবে। ধরলেই ওপাশ থেকে বাবা বলে উঠবে, ‘চঞ্চল, বাবা ভালো আছো?’

শুরুতে মডেলিংয়ের মধ্যদিয়ে মিডিয়ায় যাত্রা শুরু করেন চঞ্চল চৌধুরী। এরপর ধীরে ধীরে ছোট পর্দায় ছোট খাটো চরিত্রে অভিনয় শুরু করেন তিনি। বর্তমানে দেশের তুমুল জনপ্রিয় অভিনেতাদের মধ্যদিয়ে শীর্ষে রয়েছেন তিনি।

About Rasel Khalifa

Check Also

শাকিবের বিপদের দিনে বুবলীর স্ট্যাটাস: তখন অনেক কেঁদেছিলাম, অবশ্যই তা ছিল সুখের কান্না

ঢাকাই সিনেমার বেশ আলোচিত তারকা দম্পতি শাকিব খান ও শবনম ইয়াসমিন বুবলী। সিনেমায় এক সঙ্গে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *