Friday , January 27 2023
Breaking News
Home / Countrywide / আমাকে মেরে যদি শান্তি পায় মারতো, বাসায়ও বলি না-শেয়ারও করি না: শামীম ওসমান

আমাকে মেরে যদি শান্তি পায় মারতো, বাসায়ও বলি না-শেয়ারও করি না: শামীম ওসমান

শামীম ওসমান বাংলাদেশের রাজনীতির বড় একটি নাম। এই নামটি দীর্ঘদিন ধরেই বাংলাদেশের রাজনীতি তথা আওয়ামীলীগের সাথে রয়েছে জড়িত। শুরু থেকেই তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত রয়েছেন। বর্তমানে তিনি নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য। এ দিকে সম্প্রতি একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, এখন যেমন আকাশে শকুন উড়ছে, শামীম ওসমান হিসেবে আমার বাড়তি কিছু দায়িত্ব আছে। এই দায়িত্ব পালনের জন্য আমাকে বোমা মেরেছে, ওয়ান ইলেভেন সরকার প্রথমে আমাকে টার্গেট করেছে। বাড়িতে বলি না, শেয়ার করি না। ভোর ৪টা পর্যন্ত জেগে থাকি এবং দেশে-বিদেশে কথা বলি। ইনশাআল্লাহ আমরা সবকিছু কাটিয়ে উঠব। আমি ভোট দিই বা না দিই তা ঠিক না, বাঁচি বা না থাকি তা ঠিক নয়।

রোববার (২৫ ডিসেম্বর) বিকেলে ফতুল্লার পূর্ব ইসদাইরে বিজয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে শামীম ওসমানকে বিশেষ সম্মাননাও দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, ২১ জানুয়ারির পর সবাইকে আলাদাভাবে ডাকবো। ইমাম, শিক্ষক, বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ভালো মানুষ নিয়ে মাঠে নামব। ‘মা’দ”ক’ সন্ত্রা’সে’র বি’রু’দ্ধে লড়াই করব। অন্তত আমরা আমাদের এলাকা ঠিক করব।

শামীম ওসমান বলেন, বিএনপির কর্মসূচিতে কেন গেলেন- এমন প্রশ্ন আমাকে এক সাংবাদিক করেন। আমি তাকে বলতে চাই, এক মাস আগে বিএনপির কর্মসূচি হয়েছে। একটি ছেলে ‘মা”রা’ গেছে। বিএনপি বলবে যে ছেলে’ মা’রা’ গেছে সে তাদের কর্মী, আওয়ামী লীগ বলবে আমাদের আত্মীয়। পুলিশ বলবে সাধারণ পথচারী, সাংবাদিকরা বিভক্ত হয়ে কথা বলবেন। যা সত্য, সত্য সে একজন মানুষ, এক মায়ের সন্তান, এক পিতার সন্তান। সে যে দলেরই হোক না কেন। সত্য যে তাকে কেউ ফিরিয়ে দিতে পারবে না। আর যেহেতু আমরা পারি না, তাই আমরা কারো মৃত্যু কামনা করি না।

দেশের বিভিন্ন ‘স্থানে এ ধ”রনের ”সংঘ’র্ষ হয়েছে ‘এবং মানুষ মারা গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘খু”’নি”রা’ এখন একটি গ্রু’পের নেতৃত্বে এসেছে। তারা একটি সি’ন্ডিকেট করতে চায়। তখন আমি একা, কেউ জানত না, এমনকি পুলিশও না। সাংবাদিকদের হাতে ধ’রা’ প’ড়ে তারা ছবি তোলেন। তারা আমাকে জিজ্ঞেস করল আমি কেন এসেছি। আমি তাই বলেন. কারণ কোন উদ্দেশ্যে নয়। যাওয়ার ইচ্ছা থাকলে আমি একা যেতাম না। (সাংবাদিক) জিজ্ঞেস করলেন, যদি আপনার উপর আক্রমণ হতো? আমি বলেছিলাম আমাকে মারতো, আমাকে মেরে যদি শান্তি পায় মারতো। আমার উদ্দেশ্য ছিল এখানে কোনো ঘটনা ঘটার সুযোগ কেউ তৈরি করতে পারবে না। খবর আমরা পাইনি।

নারায়ণগঞ্জের উন্নয়ন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মেডিকেল কলেজ করার কথা বলেছিলাম। রূপগঞ্জের আড়াইহাজারে অনেকেই মেডিকেল কলেজ নিতে চান। এখন জমি কেনার ৮০ শতাংশ ব্যবসা। একটি সমস্যা আছে? ঢাকা নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে এই মেডিকেল কলেজ, ইউনিভার্সিটি এবং আইটি ইন্সটিটিউট সহ আরও কিছু বড় প্রকল্প আমরা করব বলে আমার বিশ্বাস। আমরা এখানে ওয়ান স্টপ সার্ভিস চাই, যাতে আমাদের ঢাকায় যেতে না হয়। এবার শুধু ফতুল্লা এলাকায় রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণের জন্য ৭০ কোটি টাকা দিয়েছি।

এ সময়ে এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শামীম ওসমানের কাছের অনেক লোক। যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্যরা হলো জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শ্রী চন্দন শীল, জেলা মহিলা সংস্থার সভানেত্রী সালমা ওসমান লিপি প্রমুখ।

About Rasel Khalifa

Check Also

সারা দেশের ডিসিদের সতর্ক থাকার নির্দেশ, জানা গেল কারণ

বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট এমন যেখানে এক দল অন্য দলের সমালোচনায় মত্ত রয়েছে। নানা সময় অন্যদলের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *